Home / পরিবেশ ও বৈচিত্র্য / পৃথিবীর বুকে অদ্ভুদ ও বিষ্ময়কর কিছু প্রাণী

পৃথিবীর বুকে অদ্ভুদ ও বিষ্ময়কর কিছু প্রাণী

পৃথিবীর অদ্ভুদ সব প্রাণী সমুহ।

লাল ঠুটো বাঁদুড় মাছ
এ কিউট লালঠুটো বাঁদুড়মাছটি সাধারণত গালাপাগোস নামক দ্বীপের আশেপাশে পাওয়া যায়।দেখলেই মনে হয় অষ্টাদশী তরূণী ঠোঁটে লিপস্টিক মেখেছেন ।তবে মজার ব্যাপার হচ্ছে মাছ হওয়া স্বত্ত্বেও আমাদের এটি তেমন সাতাঁর কাটতে পারে না।তাই পাতলা ফিন নামক ডানার সাহায্যে এরা সমুদের তলদেশে লাফিয়ে চলে।(Image credits: imgur)
গ্লোব্লিনহাঙর
এই খবিশ টাইপের মাছটাকে জীবন্ত জীবাশ্ম বা “living fossil” বলা হয়।ধারণা করা হয় এরা ১২৫ মিলিয়ন বছর ধরে বসবাস করে আসছে সাগরের বুকে, তবে উনাকে দেখে যতটা ভয়ঙকর বলে মনে হচ্ছে উনি ততটা ভয়ঙকর নন (Image credits: imgur)
পান্ডাপিঁপড়া
পান্ডার মত দেহসৌষ্ঠব ধারণকারী বলে এ Mutillidae গোত্রের প্রাণীকে পাণ্ডা পিঁপড়া বলা হয়।তবে উনারে দেখতে যতটা কিউট বলে মনে হচ্ছে উনি ততটাই বিষাক্ত।একবার কামড়ালে তিনদিন পর্যন্ত মনে থাকবে. (Image credits: Chris Lukhaup)
ডিকস্নেক{ঃপি}
হে হে এরকম অশ্লীল টাইপ জিনিসটা প্রথম দেখায় ভুল হইতে পারে।কিন্তু নিজ দ্বায়িত্বে বুঝে নেবেন এটি একটি নিরীহ নির্বিষ সাপ। (Image credits: fotos.noticias.bol.uol.com.br)
UmboniaSpinosa
এই জিনিসটা দেখতে প্রায় ফুলের মত দেখাচ্ছেনা? খুবই কিউট?? এই কিউট প্রাণীটা কিন্তু মোটেও ফুল নয়। এরা প্রায়ই ভয়ঙ্গকর একটা কাজ় করে থাকে। এরা গাছের কচি শীর্ষমুকুল ভেঙ্গে গাছকে প্রায় জরাজীর্ণ করে ফেলে। (Image credits: Colin Hutton)
Lowland Streaked Tenrec
এই ছোট্ট প্রাণীটা আফ্রিকার মাদাগাস্কারে পাওয়া যায়।ছোট্ট এই স্তন্যপায়ী প্রাণীটিই একমাত্র স্তন্যপায়ীদের মধ্যে কীট-পতঙ্গকে আকৃষ্টকারী শব্দ সৃষ্টি করতে পারে। (Image credits: hakoar |telegraph.co.uk)
হামিংবার্ডপতঙ্গ
পাখির মত দেখতে হলেও আসলে এটি কিন্তু পাখি নয়। আপনারা নিশ্চয়ই হামিংবার্ড পাখির নাম শুনেছেন? হ্য এটি হামিংবার্ড পাখির মতই কিন্তু এটি হচ্ছে হামিং বার্ড পতঙ্গ। মজার ব্যাপার হচ্ছে এটী হামিংবার্ডের মত হুবুহু শীষও দিতে পারে। বেশিরভাগ পতঙ্গ বর্ণ দ্বারা আকৃষ্ট হলেও এটী পাখির মত বর্ণ বা রঙ স্বারা ই আকৃষ্ট হয়।
. (Image credits: Jerzy Strzelecki | unknown)
নীলড্রাগন
এই ক্ষুদ্র প্রাণীটি নীল ড্রাগন নামে পরিচিত। এটা স্মুদ্রকীটেরই ভিন্ন একটা প্রজাতি। এটা সমুদ্রের গরম পানি সহ্যু করতে পারেনা। এর উদর দেশে থাকা বায়ুথলির কারণে এরা ঠান্ডা সাগরের পানিতে ভাসতে পছন্দ করে।(Image credits:unknown | unknown | paulhypnos)
সমুদ্রপদ্ম
এটীচিংড়ীমছজাতীয়প্রাণী।(Image credits: Alexander Safonov)
ভেনেজুয়েলান পুডল মথ
এই পোকাটি ভেনেজুয়েলায় ২০০৯ সালে আবিষ্কার করা হয়। এটিকে দেখতে খানিকটা এলিয়েনের মত লাগে তাই না?? (Image credits: Arthur Anker | imgur)
পাকুড়মাছ
ক্লোজ আপ ফ্রেশ মার্কা দাতওয়ালা মাছটি পাকুঁড় মাছ নামে পরিচিত।এদের আরেকনাম “ball cutter.” মাছ। এটা আপনাকে বিশদভাবে ব্যখ্যা করার প্রয়োজন নেই যদি আপনি পাপুইয়া নিউগিনির জেলে হন। আমি জানি আপনারা পাপুয়া নিউগিনির জেলে নন। জেলেরা যখন মাছ ধরতে যান তখন পাকুড় জেলেদের অন্ডকোষে কামড় মারতে ভীষণ পছন্দ করে।্সেজন্যেই পানিতে নামলে পাপুয়া নিউগিনির জেলেরা উনাদের ব্যাপারে ভীষণ সতর্ক থাকেন।(Image credits: imgur | evolvingcomplexityii)
Giant Isopod
এটা অনেকটা চিংড়ী জাতীয় প্রাণী। (Image credits: Littoraria)
The Saiga Antelope
এই সাইগা নামক হরিণ জাতীয় প্রাণীটির বিশেষ বৈশিষ্ট্য হল এর নাক।এই আজব প্রাণীটি পুরোই ইউরেশিয়া অঞ্চল জুড়ে বিস্তৃত। এর নাক বাঁশির মত নিচের দিকে অনেকটা প্রলম্বিত(Image credits: enews.fergananews.com)
মিস্টার বুশ ভাইপার
ট্রপিকাল অঞ্চলের Bush Viper নিশাচর মাংসাশী প্রাণী।দেখতে যতই সুন্দর আচরণে ততটাই হিংস্র। (Image credits: thegeneralmonk)
নীল তোতা মাছ
এই অদ্ভুদ কর্পোরেট ভাবধারী নীল তোতামাছের দেখা পাওয়া যায় আটলান্টিক মহাসাগরে। এদের জীবনের ৮০ ভাগ সময়ই ব্যয় হয় খাবার আহরণে । (Image credits: imgur | depalmadise
বিদ্রঃ এখানে সকল ছবির ইমেজ ক্রেডিট লিঙ্কসহ দেওয়া আছে যা ক্রিয়েটিভ কমন লাইসেন্সের অন্তর্ভুক্ত। সুতরাং ছবিগুলো ক্রেডিট ছাড়া ব্যাবহার করতে গেলে আপনার ব্যাক্তিগত ব্লগ সাইট, বা ফেসবুক একাউন্ট বা পেজ ব্যান হতে পারে। এ লেখাটিও ক্রিয়েটিভ কমন লাইসেন্সের অন্তর্ভুক্ত তাই লেখকের ক্রেডিট ব্যাতিরেকে ছাপানো,মুদ্রণ ও সংযোজন , কোন অংশ কাটছাট আইনত দণ্ডণীয় অপরাধ।

About lazyfahim

Check Also

সাপের কেটে ফেলা মাথা কেমনে কামড় দেয়?

মৃত্যুর পরও সাপ কামড়ায়?ঃ সাপ?!!!! সরীসৃপ প্রজাতির শীতল রক্ত বিশিষ্ট প্রাণী। যখন সাপকে মেরে তার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *